Abhinav Kashyap, director of Dabangg, alleges that Salman Khan's 'Being Human' is a money laundering center

সালমান খানের ‘বিং হিউম্যান’ একটি অর্থ পাচারের কেন্দ্র, দাবাং-এর পরিচালক অভিনব কাশ্যপের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেন
২১/০৬/২০২০

চলচ্চিত্র নির্মাতা অভিনব কাশ্যপ অভিযোগ করেছেন যে, বলিউড সুপারস্টার সালমান খানের দানের উদ্যোগ ‘বিং হিউম্যান’ কেবলই লোক দেখানো।

“দাবাং” পরিচালক অভিযোগ করেছেন যে দাতব্য প্রতিষ্ঠানের নামে অর্থ পাচার করা হচ্ছে। অভিনব কাশ্যপ শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি ফেসবুক পোস্টে এই অভিযোগ করেন, যেখানে তিনি তার দিক থেকে সম্পূর্ণ সহায়তার আশ্বাস দিয়ে সরকারের কাছে বিষয়টি তদন্ত করার জন্য অনুরোধ করেন। তার নিজের ভাষায়, “জানাব সালিম খানের সবচেয়ে বড় উদ্যোগ হল বিং হিউম্যান”।

“জানাব সালিম খানের সবচেয়ে বড় উদ্যোগ হল বিং হিউম্যান। বিং হিউম্যান-এর দান শুধুমাত্র লোক দেখানোর উদ্দেশ্যে গঠিত… দাবাংয়ের শুটিং-এর সময় আমার চোখের সামনে ৫ টি সাইকেল দান হয়েছিল… পরের দিন খবরে ছাপা হতো দানবীর সালমান খান ৫০০ সাইকেল গরিবদের বিতরণ করেছেন… এই সমস্তই সালমান খানের গুন্ডা চরিত্রের ছবি পরিবর্তন করার চেষ্টা মাত্র, যাতে সংবাদমাধ্যম ও আদালত এনার সমস্ত ক্রিমিনাল কোর্ট রেকর্ডে কিছুটা ছাড় দেয়।” অভিনব কাশ্যপ পোস্ট করেছেন।

তিনি আরো লেখেন,”বিং হিউম্যান এখন ৫০০ টাকার জিন্স ৫০০০ টাকায় বিক্রি করে… জানিনা আর কি কি পদ্ধতিতে দানের নামে অর্থ পাচার চলছে… সাধাসিধে জনতার চোখে ধুলো দিয়ে তাদের থেকে টাকা লুটছে এই ধূর্ত লোকেরা… এদের উদ্দেশ্য কোনো ব্যক্তিকে কিছু দেওয়া নয়, শুধু নেওয়া। সরকারের বিং হিউম্যান-এর বিষয়টি নিয়ে গভীর তদন্ত করা উচিত…আমি সরকারকে সমস্ত রকম সাহায্য করবো।”

এই সপ্তাহের শুরুতে, অভিনব কাশ্যপ ফেসবুকে বলিউড সুপারস্টার সালমান খান এবং তার পরিবারকে তার কেরিয়ারকে নষ্ট করার জন্য অভিযুক্ত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *